ব্যবসা

পুঁজিবাজারে পতনের ধকল, আড়াই ঘণ্টা লেনদেন পেছাল আজ

এখনই সময় :

পুঁজিবাজারের ধারাবাহিক পতনের বিরূপ প্রভাব পড়েছে লেনদেনে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে লেনদেন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা পেছানো হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্র জানিয়েছে, আজ দুপুর ১টা থেকে লেনদেন শুরু হবে। পতনের ধকলে নিয়মিত লেনদেন কার্যক্রম আড়াই ঘণ্টা পেছানো হলো আজ।

পতন ঠেকাতে বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজার বন্ধের দাবি জানালেও সেদিকে কর্ণপাত করছে না ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। তবে এই মূল্যপতনে দিনের লেনদেন কার্যক্রম এক ঘণ্টা কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। এখন বাজারে আড়াইটার পরিবর্তে দেড়টা পর্যন্ত লেনদেন হবে বলে গতকাল বুধবার ডিএসই পর্ষদের জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশেষ উদ্যোগের মাধ্যমেও পুঁজিবাজারকে চাঙ্গা করা যায়নি। তারল্য জোগান বাড়াতে ব্যাংকের বিশেষ তহবিল গঠন, বড় মূলধনের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীকে সক্রিয় করা ও ভালো কম্পানি আনার উদ্যোগের মধ্যেও পুঁজিবাজারে কোনো উন্নতি নেই। আতঙ্ক থেকে বাজারে বেড়েছে বিক্রির ধুম। দেদার শেয়ার বিক্রির কারণে মূলসূচক কমছে। অব্যাহত বিক্রিতে শেয়ারের দাম কমে যাওয়ায় পুঁজি নিয়ে বিনিয়োগকারীদের নাভিশ্বাস বাড়ছে।

সূত্র জানায়, পুঁজিবাজারে সরকারের হস্তক্ষেপ, উন্নয়নের আশ্বাস ও প্রণোদনাতেও কাজ হচ্ছে না। বাজার উন্নয়নে সব মহলের চেষ্টা অনেকটাই ব্যর্থ। মন্দাবস্থার আতঙ্কে ছোট-বড় সব বিনিয়োগকারী শেয়ার বিক্রি করছেন। ভিত্তি পয়েন্টের নিচে নেমেছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসই। ক্রমাগত শেয়ারের দাম কমতে থাকায় বিনিয়োগকারীর পুঁজি হারানোর নাভিশ্বাস বাড়ছে। নীরব রক্তক্ষরণ চলছে পুঁজিবাজারে। কেউ লোকসানে শেয়ার বিক্রি করছে আবার লোকসানের মাত্রা বাড়লেও বাজারের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করছে।

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য তফসিলি ব্যাংকগুলোর প্রত্যেকটির ২০০ কোটি টাকা করে বিশেষ তহবিল গঠনের অনুমোদন দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। কম্পানি আইন অনুযায়ী বিনিয়োগসীমার বাইরে ব্যাংকের এই তহবিল গঠনে পুঁজিবাজারে প্রায় সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ আসার সুযোগ সৃষ্টি হয়। বিনিয়োগ আসার বিপরীতে এখন ক্রমেই তলানিতে পুঁজিবাজার।

সর্বশেষ গত সোমবার ব্যাংক মালিক ও ব্যাংকের শীর্ষ ব্যক্তিদের নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ব্যাংকের বিশেষ তহবিল গঠন করে গতকাল বুধবার থেকে পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ আসার আশ্বাস দেন ব্যাংক মালিকরা। এই ঘোষণার মধ্যে গতকাল পুঁজিবাজারে বড় দরপতন হয়েছে। শুরুতে শেয়ার কেনার চাপে সূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও পরে বিক্রির চাপে বড় পতনের মুখে পড়ে পুঁজিবাজার।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close