আন্তর্জাতিক

পঙ্গপালের আক্রমণে পূর্ব আফ্রিকা ছারখার

এখনই সময় :

এখনই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে আগামী জুন মাসের মধ্যে পূর্ব আফ্রিকায় পঙ্গপালের সংখ্যা ৪০০ গুণ বৃদ্ধি পাবে বলে সতর্ক করেছে রাষ্ট্রপুঞ্জের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (FAO)।

তীব্র খাদ্য সংকটের আশঙ্কা
এই মুহূর্তে পূর্ব আফ্রিকায় খাদ্যাভাব চরমে। সেখানকার ১.৯ কোটি মানুষ ঠিকমতো খেতে পান না। এর মধ্যে সেখানকার বিভিন্ন দেশে ফসল তছনছ করছে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল। এখনই এদের রোখা না গেলে সেখানে খাদ্য সংকট আরও তীব্র হবে বলে আশঙ্কা করছে FAO।

কীটনাশক শূন্য দেশ
পঙ্গোপাল মোকাবিলায় হিমশিম অবস্থা আফ্রিকার এই দেশগুলির। কেনিয়াতে কীটনাশকের সংকট দেখা দিয়েছে। কৃষিজমিতে কীটনাশক ছড়ানোর জন্য ইথিয়োপিয়ায় আরও বিমান প্রয়োজন। এদিকে, গৃহযুদ্ধে ক্ষতবিক্ষত সোমালিয়া এবং ইয়েমেন পঙ্গপালদের আক্রমণ থেকে ফসল কতটা সুরক্ষিত রাখতে পারবে, তা নিয়ে প্রশ্নচিহ্ন আছে।

কৃষকের সর্বনাশ
পঙ্গপালরা খাবারের জন্য ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে বেড়ায়। একেক ঝাঁকে কয়েক লাখ থেকে এক হাজার কোটি পতঙ্গ থাকতে পারে। আর যে যেখানে তারা একবার আক্রমণ করে, সেখানে খাদ্য শেষ না হওয়া পর্যন্ত যায় না। ফলে একবার কোনও এলাকায় পঙ্গপাল আক্রমণ করলে ফসলের দফারফা হয়।

উগান্ডায় নামল সেনা
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে উগান্ডায় ইতোমধ্যে সেনাবাহিনীকে মোতায়েন করা হয়েছে। ফসলে কীটনাশক ছড়ানোর জন্য প্রশিক্ষিত কয়েকশো যুবককে নামিয়েছে কেনিয়া। এ দিকে, সোমিলিয়া কীটনাশক শূন্য। এই পরিস্থিতিতে সে দেশে পঙ্গপালের ঝাঁক লক্ষ্য করে আকাশে বিমান বিধ্বংসী বন্দুক থেকে গুলি ছুঁড়ছে সেনাবাহিনী।

মার্চে নতুন বিপদ
আগামী মার্চ মাসে ফসলে নতুন পাতা বেরোবে। সে সময় আরও এক দফায় পঙ্গপালের আক্রমণের সতর্কবার্তা জানিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জ। এই সময় ফসল বাঁচানোই এখন কৃষকদের কাছে চ্যালেঞ্জ।

সময়ের সঙ্গে লড়াই
নতুন ফসল রক্ষা করাই এখন পূর্ব আফ্রিকার কৃষকদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কারণে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফসল রক্ষায় লড়াই চালাচ্ছেন তাঁরা।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close