মুক্তমত

চিপসের নামে কী খাচ্ছে শিশুরা?

এখনই সময় :

গতকাল শনিবার রাত নয়টা। হঠাৎ কাঁধের বোঝাটা নিয়ে মতিঝিলের ডিএসসি বিল্ডিংয়ের নিচে দাঁড়ালেন দুজন লোক। দুজনেরই সারা শরীর যেন ময়লার ভাগাড়। একজন আনজব আলী ও আরেকজন কাশেম মিয়া।
বুঝলাম গরিব মানুষ। কিন্তু তার সঙ্গে তো শরীরে এত ময়লা নিয়ে চলাফেরার রসায়নটার মিল কি। কাঁধ থেকে নামানো সোনালী রংয়ের জিনিসগুলো আলো-আঁধারিতে চকচক করছে। জানার আগ্রহ বেড়ে গেল।

কি জিনিস এগুলো ভাই? প্রশ্ন করতেই বললেন- মামা এগুলো চিপস, বাচ্চাদের জন্য। চিপসের সঙ্গে কি? আবারও বললেন- এগুলা খেলনা। এত রাতে এগুলো নিয়ে কই যাচ্ছেন? এক প্রশ্নের জবাবে মিললো অনেক উত্তর। আনজব আলী এগুলো রাজশাহী পাঠাবেন। তাই বাসের জন্য অপেক্ষা করছেন। জানালেন রাজধানীর দনিয়ায় তাদের কারখানা। ময়দার সঙ্গে পচা গলা কলা মিশিয়ে তারা বানান এসব চিপস। পরে চাহিদা অনুয়ায়ী সেগুলো পাঠান সারাদেশে।
পাতলা পলিথিনে কোনোভাবে প্যাকেট করে বাজারজাত করা হয় এসব শিশুখাদ্য। বাচ্চাদের কাছে টানতে সঙ্গে দেয়া হয় প্লাস্টিকের খেলনা। আনজবের ময়লা শরীরের কথা জিজ্ঞাসা করতেই সোজাসাপটা উত্তর- আমরা কারখানায় কাজ করি, নিজেরাই কষ্ট করে এগুলো বানাই। এত পরিস্কার থাকার সময় কই পাবো? যা বুঝার বুঝলাম।
এখন বিষয় হচ্ছে চিপসের নামে কি খাচ্ছে আমাদের শিশুরা? কোথায়, কি দিয়ে, কিভাবে বানানো হচ্ছে এসব অখাদ্য তার কোনো ঠিকানা কি আমরা জানি? আছে কি কোনো তদারকি? কারা বানাচ্ছে সে তালিকা কি আছে আছে খাদ্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট? হলফ করে বলতে পারি এগুলোর কোনোটিই নেই কর্তৃপক্ষের নিকট।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close