জাতীয়

দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি: আইইডিসিআর

এখনই সময় :

জাতীয় রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, দেশে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগী পাওয়া যায়নি।

আজ মঙ্গলবার মহাখালীর আইইডিসিআর ভবনে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাস আক্রান্ত রোগী মেলেনি। ভাইরাস সন্দেহে যাদের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাদের মধ্যে করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ৭৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে কোনো নমুনায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। সুতরাং বলা যায়, বাংলাদেশে কোনো করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি নেই।

চীনের উহান থেকে ফেরত আসা ৩১২ জন যাত্রীর সবাই সুস্থ আছেন জানিয়ে আইইডিসিআর-এর পরিচালক বলেন, ৩১২ জন উহান ফেরত যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইন পরবর্তী আরও ১০ দিন ৩১২ জনকে সীমিত চলাচল ও নিজেদের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি অবহিত করতে আইইডিসিআর-এর সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

চীন বা সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে আসা লোকদের নাম ঠিকানা না প্রকাশ করার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে দেশ-বিদেশের বরাত দিয়ে নানা গুজবের সৃষ্টি হয়েছে। চীন বা সিঙ্গাপুর থেকে ফেরাদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করায় তাদের সামাজিকভাবে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। তাই গুজব এবং জবরদস্তি’ দুটিই সম্ভাব্য রোগী সনাক্তকরণে বাধার সৃষ্টি করবে এবং সন্দেহজনক রোগীরা তথ্য ও অবস্থান গোপন করবে। এটা করোনা ভাইরাস রোগী সনাক্ত করতে জনস্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের চেষ্টাকে হুমকির মুখে ফেলবে।

সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে প্রেরিত সর্বশেষ খবরের বরাত দিয়ে জানানো হয়, সেখানে ৫ জন বাংলাদেশের নাগরিক করোনা সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের মধ্যে ১ জন আইসিইউতে আছেন। কোয়ারান্টাইনে আছেন ৫ জন বাংলাদেশের নাগরিক। সিঙ্গাপুরে সর্বমোট ৭৭ জন রোগী চিকিৎসাধীন। বাসস

 

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close