সারাদেশ

রাতে স্বামীর মারধর, সকালে ঘরে মিলল স্ত্রীর লাশ

এখনই সময় :

দু’চোখ ভরা স্বপ্ন নিয়ে ৬ বছর আগে স্বামীর ঘরে এসেছিলেন মাহমুদা আক্তার হীরা (২৫)। স্বামীর নির্যাতন তার সেই স্বপ্ন থেমে গেছে। আজ সোমবার সকালে টঙ্গীর খৈরতৈল পূর্বপাড়া এলাকার বাবার বাড়ি থেকে হীরার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত হীরা ওই এলাকার ব্যবসায়ী মো. হানিফের মেয়ে। তার স্বামী কামরুল হাসান রাসেল (৩১) নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার সোনাপুরের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

নিহতের ছোট বোন ফাতেমা আক্তার জানান, হীরা টঙ্গী সরকারি কলেজ থেকে মাস্টার্স করেন। গাজীপুর মহানগরীর বোর্ডবাজারের একটি প্রতিষ্ঠানের হিসাব রক্ষক ছিলেন তার বোন। বিয়ের কিছুদিন পর তার ভগ্নিপতি মালয়েশিয়ায় চলে গেলে হিরা ৫ বছরের ছেলে আহেল রাজকে নিয়ে বাবার কৈরতৈলের বাসায় থাকতেন। তিন মাস আগে ভগ্নিপতি রাসেল ৬ মাসের ছুটিতে দেশে ফেরেন। রবিবার রাতে হীরার সঙ্গে স্বামীর কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মারধর করে বাড়ি থেকে চলে যায় রাসেল। সোমবার সকালে ঘরের দরজা বন্ধ ও ভেতর থেকে বোনের সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে হীরাকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে দ্রুত টঙ্গীর সাতাইশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আব্দুল মালেক জানান, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে। হীরা স্বামীকে অনেক ভালোবাসতেন। তুচ্ছ ঘটনায় মারধর থেকে না এ ঘটনার সাথে অন্য কোনো কারণ রয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close