আন্তর্জাতিক

দিল্লিতে কলেজে ঢুকে প্রকাশ্যে গণহারে যৌন নির্যাতন!

এখনই সময় :

জেএনইউ এবং জামিয়াতে অশান্তির আঁচ সারা ভারতে এখনও গনগনে। এরই মধ্যে শনিবার দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন মিটেছে। নির্ভয়ার ধর্ষক-খুনিদের এখনও ফাঁসির দিন ঘোষণা হয়নি। সেই আবহেই ফের একবার ভারতের রাজধানীতে মেয়েদের কলেজে একাধিক ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে উত্তাল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের গার্গী কলেজ।

মদ্যপ গুন্ডারা উৎসবের সময় গার্গী কলেজে ঢুকে যৌন হেনস্থা করেছে এবং এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। ঘটনার চার দিন পরও দায়ের হয়নি কোনও এফআইআর।

বলিউডেও গার্গী কলেজের ঘটনার ঢেউ আছড়ে পড়েছে। মুখ খুললেন অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর ও হুমা কুরেশির মতো নায়িকারা। জামিয়া, জেএনইউ-এর মতো একাধিক ঘটনায় বরাবরই নিজের বক্তব্য প্রকাশ করেছেন স্বরারা। এবারও তাই চুপ থাকেননি তাঁরা। স্বরার ট্যুইট, ‘দিল্লিতে কী চলছেটা কী?? লজ্জা’। অন্যদিকে হুমার ট্যুইট, ‘গণশ্লীলতাহানি। কী হচ্ছেটা কী? আমরা কেন মেয়েদের সুরক্ষা দিতে অপারগ? দেশের পড়ুয়ারা সুরক্ষিত নয় কেন?’

অভিযোগ, গত ৪ জানুয়ারি থেকে ৩ দিন উৎসব চলেছে কলেজে। ৬ ফেব্রুয়ারি বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপলক্ষে অন্য কলেজের ছাত্রছাত্রীদের ক্যাম্পাসে ঢোকার অনুমতি ছিল। আবার ওই দিনই কলেজের বাইরে বিজেপির করা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (CAA) সমর্থনে মিছিল বেরিয়েছিল। বিজেপি সমর্থকদের ওই মিছিল থেকেই অপ্রকৃতস্থ অবস্থায় এক দল লোক ট্রাকে চেপে ক্যাম্পাসে ঢুকে পড়ে। গেট ভেঙে কয়েকজন দুষ্কৃতী ঢোকে।

অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণে তখন থিকথিকে ভিড়। তারই মধ্যে বহিরাগতেরা ঢুকে মেয়েদের যৌন হেনস্থা করে বলে অভিযোগ। অশালীন মন্তব্য, গায়ে হাত দেওয়া এমনকী ছাত্রীদের সামনে তারা হস্তমৈথুন করে বলেও অভিযোগ। এমন পরিস্থিতিতে মেয়েরা ভয় পেয়ে কলেজের শৌচালয়ের দিকে ছুটে পালালে, সেখানে তাঁদের আটকে রাখা হয় বলেও দাবি পড়ুয়াদের একাংশের।

নিরাপত্তারক্ষীদের সামনেই বিকাল ৪টে থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ক্যাম্পাসের ভিতর এই তাণ্ডব চলে বলে অভিযোগ। তা নিয়ে ওই দিন রাতেই কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানান পড়ুয়ারা। কিন্তু তার পর চার দিন কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত কলেজের তরফে কোনও লিখিত অভিযোগ জানানো হয়নি।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close