লাইফষ্টাইল

মাস্ক ব্যবহার কী করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করতে পারে?

এখনই সময়:

চীনজুড়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সর্বশেষ ৪২৫ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ‘আলজাজিরা’। নতুন করে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়েছে।

এদিকে চীনের বাইরে এ ভাইরাসে মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে ফিলিপাইনে। মৃত ওই ব্যক্তির বয়স ৪৪। সম্প্রতি তিনি উহান থেকে ফিরেছেন। মৃত ওই ব্যক্তি ২৫ জানুয়ারি থেকে ম্যানিলার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার প্রধান লক্ষণগুলো হলো– শ্বাসকষ্ট, জ্বর, কাশি, নিউমোনিয়া ইত্যাদি। এই রোগ এক বা একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ নিষ্ক্রিয় করে আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু ঘটাতে পারে।

এদিকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত তেমন কোনো ওষুধ বা প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারেননি।

তবে বিজ্ঞানীরা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষার উপায় হিসেবে মাস্কে মুখ-নাক ঢেকে বেরোনোর পরামর্শ দিয়েছেন।
তবে এখন প্রশ্ন হলো– এই মাস্ক ব্যবহার কী করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করতে পারে?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সঠিক আবহাওয়া ও সঠিক উপায়ে যদি মাস্ক ব্যবহার করা হয়, তবে এই ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোর ক্ষেত্রে অনেকটাই কার্যকর হতে পারে।

তবে চীন ছাড়া অন্য কোনো দেশে মাস্ক ব্যবহারের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

আসুন জেনে নিই বিশেষজ্ঞদের মতে কোন ধরনের মাস্ক ব্যবহার করবেন-

জর্জিয়ার আটলান্টার ইমোরি ইউনির্ভাসিটি স্কুল অব মেডিসিনের সহকারী প্রভাষক মেরিবেথ সেক্সটন জানান, সর্বাধিক পরিহিত, সস্তা এবং ডিসপোজেবল মাস্ক, যা সার্জিক্যাল মাস্ক হিসেবে পরিচিত, এটি করোনাভাইরাসকে আটকাতে পারলেও নির্মূল করতে পারে না।
তিনি বলেন, এসব মাস্ক সার্জিক্যাল মাস্ক, যা হলুদ বা নিল রঙের হয়ে থাকে এবং শক্তভাবে কানের মধ্যে আটকানো যায়। তবে এর মাধ্যমে মুখ, চিবুক ও নাক ঢাকা সম্ভব হয়। আর এসব মাস্কের ওপরে একটি লোহার স্ট্রিপ থাকে, যা সহজে মুখ-নাক ঢেকে রাখে।

বিশেষজ্ঞরা আরও জানিয়েছেন, মাস্ক পরার পাশাপাশি সেটি খোলার বিষয়েও সতর্ক থাকতে হবে। মাস্ক খোলার সময় খেয়াল রাখা উচিত যেন এতে কোনো ময়লা না লাগে এবং একবারে খোলা যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close