আন্তর্জাতিক

‘তাঁর বাংলাদেশেই চলে যাওয়া উচিত’, মমতাকে বেনজির আক্রমণ

এখনই সময়:ভারতের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বেনজির আক্রমণ করলেন দেশটির উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। সোমবার মমতাকে আক্রমণ করে বিজেপির এই বিধায়ক বলেন, ‘একজন নির্দয় মহিলা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাশ্মীরে পাথর ছোড়ে যারা, তাদের মতো মুসলিম অনুপ্রবেশকারীদের মমতা এদেশে জায়গা করে দিচ্ছেন।’

এবারই অবশ্য প্রথম নয়, সপ্তাহ খানেক আগেই সুরেন্দ্র সিং বলেন, ‘মমতা একটা শয়তান। শতশত হিন্দুদের যারা মেরেছে, তাদের উনি আড়াল করছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের মানুষের সঙ্গে নয়, আসলে আছেন বাংলাদেশি শয়তানদের সঙ্গে।’

এখানেই অবশ্য তিনি থামেননি। তাঁর দাবি, ‘যদি বাংলাদেশি আর পাকিস্তানি মুসলিমদের এদেশে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়, প্রতিটা রাস্তা জম্মু-কাশ্মীরের মতো পাথর হাতে বিক্ষোভকারীদের ভিড়ে ভরে যাবে।’

যদিও এর ফল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাবেন বলেই দাবি তাঁর। তিনি বলেন, ‘এই নির্দয় মহিলাকে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেবে মানুষ।’

উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক হলেও বারবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে থাকেন সুরেন্দ্র সিং। এর আগে গত সেপ্টেম্বরে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এনআরসি পশ্চিমবঙ্গেও প্রয়োগ করা হবে এবং তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি বাংলাদেশিদের ধরে রাখতে চান, তাহলে তাঁর জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়াই ভালো।’

তাঁর কথায়, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খারাপ দিন ঘনিয়ে এসেছে। বাংলাদেশের জনগণের সমর্থন নিয়েই যদি তিনি রাজনীতি করতে চান তাহলে তাঁর বাংলাদেশেই চলে যাওয়া উচিত। মুখ্যমন্ত্রীর যদি সাহস থাকে তাহলে তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে যান । তাতে আখেরে তাঁর ভালোই হবে।’

সঙ্গে বিজেপির এই বিধায়ক আরও বলেছিলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গেও লাগু হবে এনআরসি। আর যাঁরা ভারতের নাগরিক হিসেবে যোগ্যতা অর্জন করবেন না তাঁদের সম্মানজনকভাবে নিজেদের আসল দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।’

সঙ্গে বালিয়ার এই বিজেপি বিধায়কের আরও বক্তব্য ছিল, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পি চিদাম্বরমের মতোই উচিত শিক্ষা দেওয়া উচিত।’

আরও আগে পশ্চিমবঙ্গের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বৈরিয়া থেকে প্রথমবার জয়ী বিজেপির এই বিধায়ক বলেছিলেন, ‘বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলি থেকে সন্ত্রাসবাদীরা এখন পশ্চিমবঙ্গে পালাচ্ছে। এ ভাবে চলতে থাকলে পশ্চিমবঙ্গ একদিন জম্মু-কাশ্মীরে পরিণত হবে।… মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শূর্পণখায় পরিণত হয়েছেন। কংগ্রেস হয়ে উঠেছে রাবণ।’

এ রাজ্যে হিন্দুদের সুরক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন সুরেন্দ্র সিং। বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে সন্ত্রাসবাদীরাও এখন মমতার রাজ্য এসে আশ্রয় নিচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তো শূর্পণখার ভূমিকা নিয়েছেন। লোকজন মরছে, তিনি মুখ্যমন্ত্রী হয়ে কিচ্ছুটি করছেন না।’

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close