আন্তর্জাতিক

নতুন বছরের শুরুতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের শিকার মোদি

এখনই সময়  :ইংরেজি নতুন বছর প্রথম সকালেই টুইট করে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে ট্রোলের শিকার হলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার সকালে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে একটি টুইট করেন তিনি। লেখেন, ‘২০২০ খুব ভাল কাটান। নতুন বছর আনন্দ ও উন্নতিতে ভরে উঠুক। সকলে সুস্থ থাকুন। সকলের ইচ্ছেপূরণ হোক।’

হিন্দিতেও শুভেচ্ছা জানান তিনি। একই সঙ্গে আরেকটি টুইটে তিনি সরকারি কাজের খতিয়ান তুলে ধরেছেন। তাঁর এই টুইট নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন সরকারের এটা প্রথম নববর্ষ। তাই ২০১৯ শেষের আগে সরকারের কাজের খতিয়ানও টুইটে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। ২০১৯-এ সরকার কী কী কাজ করেছে। আর ২০২০-তে সরকার কী কী করতে চায় তাও এদিন টুইটারে তুলে ধরেন মোদি।

এ সম্পর্কে একটি মন্তাজও পোস্ট করেন প্রধানমন্ত্রী। লেখেন, ‘দারুণ সংমিশ্রণ। ২০১৯ সালে আমরা যে উন্নতি করেছি, তার অধিকাংশই এখানে রয়েছে।’ টুইটে তিনি আরও লেখেন, ‘২০২০-তে মানুষের শক্তি বাড়িয়ে ট্রান্সফর্ম ইন্ডিয়া গড়া ও ১৩০ কোটি ভারতীয়র ক্ষমতায়ন করার আশা রয়েছে।’

মন্তাজটির শুরুতে দেখা যায়, একটি মেয়ে সমুদ্রে সৈকতে দৌড়াচ্ছেন। এরপরের ফ্রেমটিতে দেখানো হয় স্ট্যাচু অব ইউনিটি। এরপর সেই মন্তাজে একের পর ৩৭০ ধারা বাতিল, তাৎক্ষণিক তিন তালাক বিলোপ, বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক, বিশ্বে ভারতীয় মহিলা ক্রীড়াবিদদের সাফল্য-সহ একাধিক বিষয় উঠে এসেছে। সরকারের দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার বিষয়টিও ভিডিওতে উঠে এসেছে। এমনকী ঠাঁই পেয়ে CAA সংক্রান্ত খুঁটিনাটিও।

এই টুইট ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা শুরু হয়েছে। নেটিজেনদের একাংশ যেমন প্রশংসাও করেছেন। তেমনই আরেকটি অংশ ট্রোল করতেও ছাড়েনি। জনৈক টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, সবই তো বুঝলাম। কিন্তু PMC ব্যাংকের আর্থিক দুর্নীতির পর সাহায্য চাওয়া হয়েছিল। সেটা মেলেনি। আবার কেউ কেউ লিখছেন, CAA কার্যকর করতে গিয়ে এতজনের প্রাণ গেল, আপনি দেখতে পেলেন না। সবমিলিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close