আন্তর্জাতিক

ইরানে বিক্ষোভের আশঙ্কায় ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ

এখনই সময় :ইরানে বৃহস্পতিবার সরকারবিরোধী বিক্ষোভের আগে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এর আগে বেশ কয়েকটি এলাকায় ইন্টারনেট সেবা ব্যাহত হচ্ছিল। তারপরেই ইন্টারনেট সংযোগ পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। খবর বিবিসি’র

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, তাদের ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ইন্টারনেট সংযোগ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা নেটব্লকস জানিয়েছে, ইন্টারনেট ব্যবহারের হার হ্রাস পেয়েছে। আধা-সরকারি ইরানি সংবাদ সংস্থা ইলনা দেশটির এক সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ইন্টারনেট বন্ধের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে নেওয়া হয়েছে। গত মাসে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে হওয়া বিক্ষোভের সময় সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে যারা নিহত হয়েছে, তাদের স্মরণে নতুন বিক্ষোভের আহ্বান জানানোর পর ইন্টারনেট বন্ধের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল দাবি করেছে, গত মাসে চলা বিক্ষোভের সময় নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর টানা কয়েকদিনের অভিযানে অন্তত ৩০৪ জন মারা গেছে এবং কয়েক হাজারের বেশি মানুষ গ্রেফতার হয়েছে। নাম প্রকাশ না করা কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের সূত্র ধরে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার। নভেম্বরে ইরানের সরকার জালানি তেলের দাম ৫০ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দিলে ইরানের বিভিন্ন শহর এবং শহরতলীতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে করা পরমাণু চুক্তি বাতিল করার পর ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। তারপর থেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ইরানের অর্থনীতি। বিক্ষোভ বাড়ার সাথে সাথেই ইন্টারনেট সংযোগ সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর আগেই বেশ কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে দেখা গেছে নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিরস্ত্র বিক্ষোভকারীদের দিকে গুলি ছুড়েছে। কারাজ শহরের পৌইয়া বখতিয়ারি নামের ২৭ বছর বয়সী নিহত এক বিক্ষোভকারীর আত্মীয় বৃহস্পতিবার তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের জন্য সামাজিক মাধ্যমে মানুষকে আহ্বান জানান।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ আবারো শুরু হতে পারে সেই আশঙ্কায বখতিয়ারির পরিবারের সদস্যদের গ্রেফতার করা হচ্ছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close