সারাদেশ

দুই জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ভারতীয় নাগরিকসহ নিহত ৩

বরিশাল ও চুয়াডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় একজর ভারতীয় নাগরিকসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। বরিশালে যাত্রীবাহী বিআরটিসি বাসের চাপায় অটোরিকশা চালকসহ দুইজন এবং চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনায় পাউয়ার ট্রলারের ধাক্কায় একজন ভারতীয় নাগরিক প্রাণ হারান।

জানা গেছে, শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের কাশিপুর এলাকায় কামিনি পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- রামপট্টি এলাকার মো. লোকমান হোসেন (৩৯) ও মীরগঞ্জ এলাকার সিদ্দিকুর রহমান (৫৫)।

পুলিশ জানায়, অটোরিকশাটি একজন যাত্রী নিয়ে ওই এলাকার একটি শাখা রোড থেকে মহাসড়কে উঠছিল। এসময় দ্রুতগামী বরিশাল শহরমুখী একটি বিআরটিসি বাস অটোটিকে চাপা দেয়। এতে চালক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। অটোর এক যাত্রী গুরুতর আহত হলে উদ্ধার করে শেবাচিমে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই যাত্রীও মারা যান।

বরিশালের বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ বিন আলম জানান, তাদের দুজনের লাশ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

এদিকে, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা দর্শনা বাসস্ট্যান্ডে একটি আখবোঝায় পাউয়ার ট্রলারের ধাক্কায় নিহত হন ওই ভারতীয় নাগরিক। তার নাম তফন বিশ্বাস।

দামুড়হুদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, রাত ১০টার দিকে ভারতীয় নাগরিক তফন বিশ্বাস (৪২) দর্শনা বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তিনি ভারতের ২৪ পরগনা জেলার জুরবাড়িয়া গ্রামের ওমর বিশ্বাসের ছেলে। তিনি পাসপোর্টধারী ভারতীয় নাগরিক হিসেবে বৈধপথে সীমান্ত অতিক্রম করে চুয়াডাঙ্গায় এসেছিলেন। দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার পর তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসাপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তার লাশ নিয়মতান্ত্রিকভাবে ভারতে পুলিশের হাতে হস্তান্তর করা হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. শামীম কবির জানান, রাতে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close