জাতীয়

বৃক্ষরোপনের এখনই সময়

 

বৈশ্বিক মহামারি  কোভিড-১৯ এর মধ্যে আমরা অবস্থান করছি। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে আমরা সতর্ক ও সচেতন হচ্ছি।

পরিবেশের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করে বেঁচে থাকার বার্তাও দিচ্ছে মহমারি করোনা। জানি না, কবে আমরা এ মহামারি থেকে মুক্তি পাবো।

অন্যান্য বছরের ন্যায় বৃক্ষরোপণের ঋতুতে তাই আমরা অনেকেই এখন বিভিন্ন গাছের চারা রোপণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।

 

বৃক্ষ রোপণ করে পরিবেশ সুন্দর রাখার এখনই উপযুক্ত সময়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকীতে সরকার সারাদেশে এক কোটি বৃক্ষের চারা রোপণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। গত বছর ১৬ জুলাই বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী এ কর্মসূচির উদ্বোধনও করেছেন।

দেশের মানুষ পরিবেশ নিয়ে অনেক সচেতন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও ঘোষণা দিয়েছেন বাড়ির আশেপাশে কোনো জমিই যেন পতিত না থাকে। শহরেও আজ বাড়ির ছাদে, টবে বিভিন্নভাবে ফলজ বৃক্ষ লাগিয়ে পরিবেশ রক্ষায় উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি এখন সামাজিক আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। মুজিববর্ষ সরকারিভাবে এক কোটি গাছে চারা রোপণের উদ্যোগ পরিবেশ সুরক্ষার সামাজিক আন্দোলনকে আরো বেগবান করবে।
এরই ধারাবাহিকতায় সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে চলছে বৃক্ষরোপণ।

আজ বিকেলে মিরপুর ১২ নম্বর সেকশনের এম ডি সি মডেল ইনস্টিটিউটের মাঠে শুরু হলো এক বৃক্ষরোপন অভিযান কার্যক্রম।

করোনাকালীন সময়ের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এ অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন, অত্র প্রতিষ্ঠানের সম্মানিত সভাপতি, আজহারুল ইসলাম (বিপ্লব মোল্লাহ)।

তিনি বলেন, বৃক্ষ হলো মানুষের প্রকৃত বন্ধু, বৈশ্বিক এই সংকটময় সময়ে একথা ভুলে গেলে চলবেনা।

প্রকৃতিকে তার অবস্থানে ফিরে আনতে বৃক্ষরোপনের কোন বিকল্প নেই।
বৃক্ষরোপন হোক একটি সামাজিক আন্দোলন।

তাই সকলকে এই সংকটময় সময়েও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বৃক্ষ রোপণ করতে আহ্বান জানান।

তিনি, স্কুল প্রাঙ্গণে বিভিন্ন ফলজ বৃক্ষ জামরুল, আম,কাঠাল, কদবেল এছাড়া বিভিন্ন ঔষধি গাছ আমলকি হরতকি বহেরা রোপণ করেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক জনাব, আনোয়ার হোসেন, বন্ধন এর
সহ -সভাপতি ওমর ফারুক রিপন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের সাধারণ সম্পাদক (আঞ্চলিক) সৈয়দ তাওহিদুর রহমান। প্রমুখ।

 

 এখন-ই সময়।

 

আরও সংবাদ

Back to top button