জাতীয়

হেফাজতের কাউন্সিল নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের হচ্ছেন আমীর কে হচ্ছেন মহাসচিব

কে এম ইউসুফ : আগামী রবিবার (১৫ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জাতীয় সম্মেলন।

 

হেফাজতের কেন্দ্রীয় কার্যালয় হাটহাজারী মাদরাসায় অনুষ্ঠিত এ কাউন্সিলে সারাদেশর ২২৯ জন কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য উপস্থিত হবেন। তারাই নির্ধারন করবেন আল্লামা আহমদ শফি রহ. এর স্থলভিষিক্ত।

 

ইতোমধ্যে এই প্রোগ্রামকে ঘিরে সারাদেশের হেফাজত নেতাদের মধ্যে উত্তেজনা চলছে, ফেসবুকে চলছে নিজ নিজ অনুসারীদের মধ্যে লেখালেখি।

 

মহাসচিব পদে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আছেন, তবে তিনি আলোচাত হচ্ছেন আমির পদে। তাই যদি হয়  তবে মহাসচিব পদে কে আসবেন? তা নিয়ে আলোচনা/উত্তেজনা তুঙ্গে এখন।

 

২০১০ সালের জানুয়ারীতে গঠিত হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আমির ও দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার সাবেক মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফি সাহেব গত ১৮ সেপ্টেম্বর ইন্তেকাল করার পর থেকেই আলোচনা চলছে এপদে কে আসেন তা নিয়ে।

 

দারুল উলুম দেওবন্দ অনুসারী চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক কওমি অরাজনৈতিক ইসলামী সংগঠন হিসেবে হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের যাত্রা হলেও কালপরিক্রমায় অরাজনৈতিক এ সংগঠনটি দেশব্যাপী কমিটি গঠন ও বিভিন্ন ধর্মীয় ইস্যুতে কর্মসূচী পালন করায় রাজনৈতিকভাবে ফ্যাক্ট হয়ে দাঁড়ায়।

 

নাস্তিকবিরোধী ১৩ দফা দাবিতে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বিশ্বজুড়ে আলোচনায় আসে এসংগঠনটি ২০১৪ সালে ৫ মে শাপলা চত্বর অবরোধের মাধ্যমে।

 

আগামী ১৫ নভেম্বর হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিতের বিষয় নিশ্চিত করে সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেন-

 

সম্মেলনে সারাদেশের প্রতি জেলা থেকে হেফাজতের শীর্ষ নেতারা সম্মেলনে উপস্থিত হবেন, সকলের মতামত নিয়ে আমির নির্বাচিত করা হবে’

Related Articles

Back to top button
Close