মুক্তমত

অপপ্রচারের বিরুদ্ধে রহমতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রতিবাদ

“প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ”

গত ৬ নভেম্বর দৈনিক যুগান্তরসহ কয়েকটি পত্রিকা, অনলাইন পোর্টাল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “বাবুগঞ্জে  রহমতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হোম অ্যাসাইনমেন্টের নামে ১০ লাখ টাকা আদায়” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ঐতিহ্যবাহী রহমতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অবিনাশ চন্দ্র রায় ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্য কাজী মহিদুল ইসলাম লিটন। প্রতিবাদলিপিতে তারা বলেন, প্রকাশিত সংবাদটি সম্পূর্ণ বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সংবাদে বিদ্যালয়ের ৭৭৮ জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে হোম অ্যাসাইনমেন্টের নামে ১০ লাখ টাকা ফি আদায়ের যে তথ্য দেওয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ কাল্পনিক।

তাছাড়া শিক্ষার্থী অভিভাবক কাজল দাস ও জাহিদ গাইনের বরাত দিয়ে সংবাদে যে বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে সেটাও সম্পূর্ণ বানোয়াট। তারা কোথাও বক্তব্য দেননি এবং প্রকাশিত বিষয়বস্তু সম্পর্কে তারা কিছুই জানেন না। অথচ তাদের নাম ব্যবহার করে একটি কুচক্রী মহল বাবুগঞ্জ উপজেলার শতবছরের ঐতিহ্যবাহী রহমতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সুনাম নষ্ট করার জন্য ওই কাল্পনিক সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। তাই আমরা শতবর্ষী রহমতপুর বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নের এহেন ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একইসঙ্গে এ ধরনের চক্রান্ত ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

প্রতিবাদকারী

রহমতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পক্ষে,

অবিনাশ চন্দ্র রায়, প্রধান শিক্ষক
কাজী মহিদুল ইসলাম লিটন, সদস্য, ম্যানেজিং কমিটি।

আরও সংবাদ

Back to top button