স্পোর্টস

ব্রডের অর্জনে সিরিজ ইংল্যান্ডের

এখনই সময় :

অর্জনটা আগের দিনই হতে পারত স্টুয়ার্ট ব্রডের। তবে বৃষ্টির কারণে ম্যানচেস্টারে চতুর্থ দিনে একটা বলও মাঠে গড়ায়নি। পঞ্চম দিনে খেলা শুরু হতেই তিনি খুব বেশি সময় নিলেন না। ক্রেইগ ব্রেথওয়েটকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে পৌঁছে গেলেন মাইলফলকে।

টেস্টের ইতিহাসে ৫০০টি উইকেট পাওয়া সপ্তম বোলার তিনি। আগেই এই তালিকায় আছেন মুত্তিয়া মুরালিধরন (শ্রীলঙ্কা), শেন ওয়ার্ন (অস্ট্রেলিয়া), অনিল কুম্বলে (ভারত), ব্রডের স্বদেশি সতীর্থ জেমস অ্যান্ডারসন, গ্লেন ম্যাকগ্রা (অস্ট্রেলিয়া) ও কোর্টনি ওয়ালশ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)। সবার ওপরে থাকা মুরালিধরনের উইকেট সংখ্যা ৮০০টি। ১৪০ তম টেস্টে গিয়ে ব্রড এই মাইলফলকে পৌঁছালেন। তালিকায় তিনি দ্বিতীয় ইংলিশ বোলার।

ব্রডের এই অর্জনের দিনে ২৬৯ রানের বিরাট এক জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। ফলে, তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জিতেছে জো রুটের দল।

দুই উইকেট হারিয়ে ১০ রান নিয়ে দিন শুরু করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইংল্যান্ডের পেস বোলারদের তোপে, ক্যারিবিয়ানদের লড়াইটা দুই সেশনও স্থায়ী হলো না। আর মাত্র ১১৯ রান যোগ করেই তারা অলআউট হয়ে যায়। ব্রডের অর্জনের দিনে মূল নায়ক অবশ্য আরেক পেসার। তিনি হলেন ক্রিস ওকস। তিনি নিয়েছেন পাঁচটি উইকেট।

ব্রডও অবশ্য খুব পিছিয়ে ছিলেন না। তিনি দ্বিতীয় ইনিংসে পেয়েছেন চারটি উইকেট। টেস্টে ব্রডের উইকেট সংখ্যা এখন ৫০১টি। এর আগে প্রথম ইনিংসে তিনি দখল করেন ছয় উইকেট। ম্যাচে ১০ উইকেট আর একটি হাফ সেঞ্চুরির সুবাদে ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠেছে তার হাতে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং একেবারেই টেস্টের উপযোগী ছিল না। শেষ ইনিংসে তাদের কোনো ব্যাটসম্যানই প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। পাঁচ জন ব্যাটসম্যান পৌঁছেছেন দুই অঙ্কের ঘরে। সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান শাই হোপ।

আরও সংবাদ

Back to top button