সারাদেশ

২ কিলোমিটার ধাওয়া করে ৩ মাদক কারবারিকে আটক

এখনই সময় :

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ফেনসিডিলসহ তিন মাদক কারবারিকে আটক করে শিবগঞ্জ থানায় দিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল। আটকের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর অনেকেরই প্রশংসা ও নানা মন্তব্য উঠে আসে। পুলিশ বিভাগও অভিনন্দন জানায় মাদক আটককারী এমপিকে।

গত ২১ জুলাই মঙ্গলবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কের ভাঙ্গাব্রিজ এলাকায় দুই কিলোমিটার ধাওয়া করে ১১ বোতল ফেনসিডিলসহ তিন যুবককে আটক করেন তিনি।

আটককৃতরা হলো- সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের টোলপাড়া গ্রামের মৃত এম হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৫), একই ইউনিয়নের শেখপাড়া গ্রামের ইমরাজ শেখের ছেলে ইব্রাহীম শেখ (২৮) ও শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের কালিগঞ্জ বাবলাবোনা গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে মরফুল হোসেন (৪৪)।

সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল জানান, ২১ জুলাই মঙ্গলবার বিকেলে চককীর্তি ইউনিয়ন থেকে শিবগঞ্জ ফেরার পথে পৌর এলাকা পাইলিং মোড়ের কাছে একটি অটোর ভেতর তিনজন ধস্তাধস্তি করছিল। এ সময় অটোবাইক থেকে দুই বোতল ফেনসিডিল রাস্তায় পড়ে যায়। সম্ভবত দুজন অন্য একজনকে অপহরণ করে নিয়ে যাচ্ছিল, এ সময় সন্দেহ হলে তিনি অটোবাইকটি ধরার জন্য চালককে দ্রুত তাঁর গাড়ি চালাতে বলেন। সেখান থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার পর সোনামসজিদ-চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়কে ভাঙা ব্রিজের কাছে এসে তাঁর গাড়ি অতি দ্রুতবেগে যাওয়া অটোবাইকের গতিরোধ করে আটক করে।

সংসদ সদস্য, তাঁর গানম্যান ও চালক অটোবাইক থেকে তিনজনকে আটক করে তাদের কাছ থেকে ১১ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে শিবগঞ্জ থানায় সোপর্দ করেন।

এমপি শিমুল বলেন, মাদকের এত ভয়াবহতার আসল চিত্র দেখে যেমন আমি বিব্রত, তেমনি শঙ্কিত। মাদকের আখড়া বিনোদপুরসহ যেখানে মাদকের রমরমা অবস্থা তা নির্মূল করতে যা যা করার দরকার সবই করব।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামসুল আলম শাহ বলেন, অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের জেরে অটোবাইকের মধ্যেই তারা ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ে একজন চিৎকার করে। আটককৃতরা মূলত ফেনসিডিল ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

 

আরও সংবাদ

Back to top button