আন্তর্জাতিক

সাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি পৌঁছলো ৩৬২ বাংলাদেশি

এখনই সময় :

সাগরপথ পাড়ি দিয়ে গত দুই দিনে ইতালি পৌঁছেছে ৩৬২ জন বাংলাদেশি। ইতালিতে বাংলাদেশিদের করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে হৈচৈয়ের মধ্যে এই খবর এলো।

ইতালির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম দ্য লোকাল জানিয়েছে, গ্রীষ্মকালে বিপজ্জনক ভূমধ্যসাগর শান্ত থাকার সুযোগ নিয়ে এসব অভিবাসী ইতালি পৌঁছেছে।

জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) শুক্রবার জানিয়েছে, গত দুই দিনে ইতালির লাম্পেডুসা দ্বীপে ৫ শতাধিক অভিবাসী পৌঁছেছেন।

ইতালির সংবাদমাধ্যম বলছে, গ্রীষ্মের শুরু থেকেই, দ্বীপটিতে বিভিন্ন দেশের অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সরাসরি পৌঁছানো বেড়েছে। এমনকি সিসিলিতে সাম্প্রতিক দিনগুলিতে দাতব্য উদ্ধারকারীরা অনেককেই উদ্ধার করেছে।

জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার তিউনিসিয়া থেকে ১১৬ জনকে নিয়ে নয়টি নৌকা পৌঁছায়। এরপর শুক্রবার তিউনিসিয়া থেকে সাতটি নৌকা এবং লিবিয়া থেকে আরো দুটি বড় নৌকায় ৪৩৪ জন ইতালি পৌঁছায়।

আইওএম জানিয়েছে, লিবিয়ার একটি নৌকায় ৯৫ জন এবং অপরটিতে ২৬৭ জন বাংলাদেশি ছিলেন।

আইওএম মুখপাত্র ফ্লাবিও ডি জিয়াকোমো বলেন, তিউনিসিয়া থেকে প্রায়ই মানুষ ইতালি আসে। কখনও কম আবার কখনও বেশি। তবে লিবিয়া থেকে বাংলাদেশিদের ইতালি পৌঁছানোর ঘটনা এটা নতুন নয়।

সম্প্রতি করোনার ভুয়া সার্টিফিকেট নিয়ে বাংলাদেশিদের ইতালি যাওয়ার ঘটনা এখন দেশটিতে বেশ আলোড়ন তুলেছে। এরপর বাংলাদেশ থেকে সকল বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয় ইতালি সরকার।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে জানান, এসব বাংলাদেশি যাত্রীদের একটি বড় অংশের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে এখানের বাসিন্দারা।

ইতালির গণমাধ্যম ‘ইল মেসাজ্জেরো’ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাত্র ৩৬ ইউরো, বাংলাদেশি টাকায় সাড়ে ৩ হাজার হলেই বাংলাদেশে মিলছে করোনামুক্তের ভুয়া সার্টিফিকেট। আর এসব সার্টিফিকেট নিয়েই কয়েক’শ বাংলাদেশি ইতালি এসেছেন।

আরও সংবাদ

Back to top button