আন্তর্জাতিক

কব্জিতে রহস্যময় দাগ দেখা গেল উত্তর কোরীয় নেতা কিমের!

এখনই সময় :

মৃত্যুর গুঞ্জন উড়িয়ে জনসম্মুখে এসেছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। শনিবার ২১ দিন পর প্রথমবার দেখা গেল তাঁকে। ফিতা কেটে শানচোন শহরের একটি সার কারখানা উদ্বোধন করেন তিনি। তবে এতোদিন কোথায় ছিলেন কিম? কেন নিরুদ্দেশ হয়েছিলেন? এমন সব প্রশ্নের কোন উত্তর মেলেনি।

তিন সপ্তাহ পরে কিম জং উনের জনসম্মুখে আসা এবং ফিরেই সার কারখানা উদ্বোধনে যাওয়া বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। ফিতা কাটার সময় কিমের হাতের কব্জিতে রহস্যময় একটি ছিদ্র দেখা গেছে। এতে অনেকে ধারণা করছেন তিনি অসুস্থ ছিলেন এবং তার অস্ত্রপচার হয়েছে।

রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম কেসিএনএ জানিয়েছে, কিম রাজধানী পিয়ংইংয়ের উত্তরে শানচোন শহরে ডিপিআরকে নামের একটি ফসফ্যাটিক সার কারখানার ফিতা কেটে উদ্বোধন করেছেন। প্রকাশিত ভিডিও এবং ছবিতে কিমের কব্জির চিহ্নটি খুব অস্পষ্টভাবে দেখা গেছে। এ বিষয়ে একজন মার্কিন মেডিক্যাল কর্মকর্তা বলছিলেন যে, ‘ছোট চিহ্নটি সাম্প্রতিক কার্ডিওভাসকুলার পদ্ধতির সংকেত দিতে পারে। সম্ভবত এটি কিমের ডান রেডিয়াল ধমনী পাঙ্কার হতে পারে।’

তাঁর দাদা এবং উত্তর কোরিয়ার প্রতিষ্ঠাতা কিম ইল সুংয়ের ১৫ ই এপ্রিল জন্মদিনের উদযাপন মিস করার পর থেকে কিমের স্বাস্থ্যের বিষয়ে জল্পনা শুরু হয়। অনেক গণমাধ্যমে কিমের মৃত্যু হয়েছে এমন গুজবও ছড়িয়ে পড়ে।

সিউল ভিত্তিক গণমাধ্যম ডেইলি এনকে, উত্তর কোরিয়ার খেলোয়াড় এবং দেশের অভ্যন্তরের অন্যান্য উৎস থেকে প্রাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে গত সপ্তাহে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল যে, কিম সম্ভবত উপকূলীয় রিসর্টে অস্ত্রোপচার থেকে সেরে উঠছেন। অতিরিক্ত মদ্যপান বা অত্যধিক পরিশ্রমের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন কিম।

Related Articles

Back to top button
Close