আন্তর্জাতিক

বাটন টিপলেই দেড় কেজি চাল

এখনই সময় :

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্বের প্রায় দেশেই লকডাউন বা কারফিউ জারি করা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে থমকে গেছে বিশ্ব অর্থনীতি। ফলে সংকটাপন্ন জীবন-যাপন করছেন খেটে খাওয়া মানুষগুলো। মহামারিতে এখনও কোনো প্রাণহানি ঘটেনি সমাজতান্ত্রিক দেশ ভিয়েতনামে। কিন্তু জনজীবনে স্থবিরতা নেমে আসায় আরও অনেক দেশের মানুষের মতো ভিয়েতনামেও অনেক মানুষ অর্ধাহারে, অনাহারে আছে। তাদের জন্য এটিএম বুথের মতো এক বিশেষ চালের মেশিন চালু করা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টাই চাল পাওয়া যায় সেই মেশিন থেকে।

এটিএম মেশিন থেকে যেমন কোড দেয়ার পর টাকা পাওয়া যায়, ঠিক সেভাবে বাটন টিপলে দেড় কেজি করে চাল পাওয়া যাবে এই মেশিনটিতে। এটিকে ‘চালের এটিএম’ বলতে চান উদ্যোক্তা হুয়াং তুয়ান আন। করোনা সংকটে কাজ হারানো গরিবদের জন্যই তার এই উদ্যোগ।

ভিয়েতনামে করোনা ভাইরাস এখনো বড় সংকট তৈরি করেনি। দেশটিতে এ পর্যন্ত ২৬২ জনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়লেও কারো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। গত ৩১ মার্চ থেকে সেখানে লকডাউন চলছে। এর ফলে, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, দিনমজুর, গৃহকর্মী বা লটারির টিকেট বিক্রেতার মতো স্বল্প আয়ের মানুষেরা পড়েছেন বিপদে।

প্রথমে অবশ্য শুধু হো চি মিন শহরে হুয়াং তুয়ান আন উদ্ভাবিত চালের এটিএমটি স্থাপন করা হয়েছিল। এখন হ্যানয়, হু এবং দানাং-এর মতো বড় শহরের গরীব মানুষেরাও পাচ্ছেন মেশিন থেকে চাল নেয়ার সুবিধা। পরিবারের সদস্যদের মুখে তিন বেলা খাবার তুলে দিতে হিমশিম খাচ্ছিলেন যারা, তাদের জীবনে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে। এমন ব্যক্তিক্রমী উদ্যোগ প্রশংসিতও হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close