আন্তর্জাতিক

অনুপস্থিত যুক্তরাজ্যের ১৩ হাজার সেনা সদস্য

এখনই সময় :

করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাজ্যের সশস্ত্র বাহিনীর ১৩ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না। মূলত তারা সেলফ আইসোলেশনে বা পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের দেখাশোনা করছেন। আর অনেককেই আবার বাসা থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে। এমন তথ্য জানানো হয়েছে গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, অনুপস্থিতির সংখ্যা হয়তো সামরিক বাহিনীর ৯ দশমিক এক শতাংশ। যদিও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জোর দিয়ে জানিয়েছিল, প্রকৃত অনুপস্থিতির হার কম রয়েছে। তবে এটা নিশ্চিত যে কমপক্ষে একশ জন সামরিক কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিন সপ্তাহ পর প্রথমবারের মতো সশস্ত্র বাহিনীতে এই রোগের কতোটা প্রভাব ফেলছে তার কোনো ইঙ্গিত দিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এর আগে বলা হয়েছিল, দশ জনেরও বেশি সেনা সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

মার্কিন ও ফরাসি নৌবাহিনীর ওপর কালো থাবা বসিয়েছে করোনা। আর তাদের মতো ব্রিটিশ সশস্ত্র বাহিনীও কারোনার থাবায় পড়তে পারে বলে শঙ্কা করা হচ্ছে। তাই বুধবার দেশটির লেবার পার্টি সরকারকে আহ্বান জানিয়েছে কতজন সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল তার তথ্য প্রকাশের।

তবে কতোজন সেনা সদস্যের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে বা কতোজন অসুস্থ বা দায়িত্ব থেকে অনুপস্থিত রয়েছে সে সম্পর্কে পরিসংখ্যান প্রকাশে অনীহা প্রকাশ করেছে ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। কারণ দেশটি এখন জাতীয় স্বাস্থ্য সেবার (এনএইচএস) কর্মীদের করোনায় আক্রান্তের বিষয়টি নিয়েই চাপে রয়েছে।

জেনারেল স্যার নিক কার্টার জানিয়েছেন, প্রায় তিন হাজার সেনা সদস্য অ্যাম্বুলেন্স সেবা দেওয়ার পাশাপাশি হাসপাতালের প্রতিরক্ষামূলক সরঞ্জাম, অক্সিজেন এবং ভেন্টিলেটর সরবরাহে সহায়তা প্রদানসহ করোনায় মোকাবেলায় বেশ কয়েকটি স্তরে কাজ করছে। স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগিতা করতে তাদের ভূমিকা অনেক বেশি।

Related Articles

Back to top button
Close