সারাদেশ

দরিদ্রদের চাল নিয়ে কারসাজি, ধরা খেলেন ছাত্রলীগ নেতা

এখনই সময় :

সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকার চাল বিক্রিতে অনিয়ম ও উপকারভোগীদের সঙ্গে প্রতারণার অপরাধে চালের ডিলার ছাত্রলীগ নেতার লাইসেন্স বাতিল করে জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের সখীপুরে ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসমাউল হুসনা লিজা নিজ কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এ দণ্ডাদেশ দেন।

ওই ডিলারের নাম আরিফ সরকার। তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সাপিয়াচালা বিক্রয় কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিলার আরিফ সরকার। তিনি গত ৫ এপ্রিল খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা হিসেবে জনপ্রতি ৩০ কেজি করে চাল বিক্রির জন্য ১৫ মেট্রিক টন চাল খাদ্যগুদাম থেকে উত্তোলন করেন। প্রতি মাসের চার সপ্তাহের সোম, মঙ্গল ও বুধবার তালিকাভুক্ত উপকারভোগীদের মধ্যে এসব চাল বিক্রির কথা।

কিন্তু তালিকাভুক্তদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত বুধবার সাপিয়াচালা বিক্রয়কেন্দ্রে ৫০-৬০ জনের কাছে বিক্রি করে দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সোমবার ওই বাজারে গিয়ে হতদরিদ্র তালিকাভুক্তরা চাল কিনতে গিয়ে ফিরে আসেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক উপকারভোগী এ প্রতিনিধিকে জানান, ওই ছাত্রলীগ নেতা বাকি সব চাল কালোবাজারে বিক্রি করে দিয়েছেন। ওই চাল কম দামে স্থানীয় অনেক প্রভাবশালী ও বিত্তবানরা কিনে ব্যবসা করেন।

ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজা বলেন, ওজনে কম, বিক্রিতে অনিয়ম ও তালিকাভুক্ত হতদরিদ্রদের সঙ্গে প্রতারণা দায়ে তার লাইসেন্স বাতিল ও দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close