সারাদেশ

‘পেট রক্ষা করতে হলে জীবনের ঝুঁকি তো নিতেই হবে’

এখনই সময় :

বেসরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি শেষ হওয়ায় ঢাকার কর্মস্থলে যেতে ঝালকাঠির বাসস্ট্যান্ডগুলোতে লোকসমাগম ও ভিড়ে সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকি দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে গার্মেন্ট শ্রমিকদের ছুটি শেষ হওয়ায় বিভিন্ন যানবাহনে তারা ঢাকার দিকে ছুটছে।

আজ শনিবার সকাল থেকে কর্মস্থলে যোগ দিতে পেটের তাগিদে ঢাকামুখী এসব মানুষ মোটরসাইকেল, টেম্পো, মাহিন্দ্রসহ নানা ছোট যানবাহনে যাতায়াত করছে। এতে করে জেলার বাসিন্দারা চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। ভেস্তে যাচ্ছে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনাও। এসব কারণে ঝালকাঠি জেলার বিভিন্ন স্থানের হাট বাজার ও গাড়িরস্ট্যান্ডে লোক সমাগম বেড়েছে।

জানা যায়, ঝালকাঠি বাসটার্মিনাল, কলেজ মোড়, দপদপিয়া জিরোপয়েন্ট, রাজাপুরের বাঘরি ও বাইপাস মোড়, কাঁঠালিয়া বাসস্ট্যান্ডে শনিবার সকাল থেকে কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য মানুষের ভির। যে যেভাবে পারছেন, সেভাবেই উঠে পড়ছেন যানবাহনে। অনেক যানবাহনে গাদাগাদি করেও বসছেন লোকজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গার্মেন্ট শ্রমিক বলেন, আমাদের ছুটি শেষ হয়েছে এখন ঢাকা যেতে যেকোনো উপায়ে। পেট রক্ষা করতে হলে জীবনের ঝুঁকিতো নিতেই হবে। আমাদের জীবনের কোনো দাম নেই।

এদিকে সেনাবাহিনীর একটি টহলদল বাসস্ট্যান্ডসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে জনসমাগম দেখলেই তাদের ঘরে ফিরিয়ে দেন। অহেতুক কেউ বাইরে বের না হওয়ার জন্য মাইকিংও করেন তারা।

ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এম এম মাহমুদ হাসান বলেন, মোড়ে মোড়ে পুলিশ পাহারা রয়েছে। কোনো যানবাহন চলতে দেওয়া হচ্ছে না। মোটরসাইকেলে একাধিক ব্যক্তি উঠলে, চালক ছাড়া অন্যদের নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক জোহর আলী বলেন, ঘর থেকে কেউ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজরে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close